জাতীয় দলের ক্রিকেটার মোসাদ্দেকের বিরুদ্ধে যৌতুকের মামলা

ক্রিকেট

দশ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ এনে জাতীয় দলের ক্রিকেটার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন স্ত্রী।

রোববার দুপুরে ময়মনসিংহ সদর আমলি আদালতের অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম রোজিনা খানের আদালতে মামলাটি করেন তার স্ত্রী শারমিন সামিরা ঊষা।

ঊষার আইনজীবী রেজাউল করিম দুলাল বলেন, “যৌতুকের দাবিতে মোসাদ্দেক দীর্ঘদিন ধরে স্ত্রীকে নির্যাতন করে আসছিলেন। ১০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে গত ১৫ অগাস্ট দুপুরে তিনি স্ত্রীকে নির্যাতন করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন।”

পরে রোববার দুপুরে ঊষা নির্যাতনের অভিযোগ এনে মামলা করেন। আদালত মামলা আমলে নিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান তিনি।

এশিয়া কাপের প্রাথমিক স্কোয়াডে রয়েছেন ২০১৬ সালে জাতীয় দলে অভিষেক হওয়া মোসাদ্দেক।

প্রায় ২৩ বছর বয়সী মোসাদ্দেক ছয় বছর আগে খালাত বোন ঊষাকে বিয়ে করেন।

মামলার বিষয়ে মোসাদ্দেক ও তার স্ত্রী ঊষার সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তারা ফোন ধরেননি।

মোসাদ্দেকের ছোট ভাই মোসাব্বের হোসেন মুন বলেন, “ছয় বছর আগে মোসাদ্দেক ও ঊষার বিয়ে হয়। ঊষা সম্পর্কে আমাদের খালাত বোন। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না।
“গত ১৫ অগাস্ট ভাই তাকে ডিভোর্স লেটার পাঠান। কিন্তু ঊষা বিয়ের কাবিন নামার চেয়ে অতিরিক্ত অর্থ দাবি করে।”

সেই টাকা না দেওয়ায় মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে এই মামলা দায়ের করেছে বলে দাবি করেন মোসাদ্দেকেরে ছোট ভাই।