এয়ারপোর্টে ৫টাকা পাওয়ার জন্য ম্যাজিস্ট্রেটকে ফোন দিয়ে পেলো আড়াই হাজার টাকা

জাতীয়

নাদিম হোসেন। নবম শ্রেণির ছাত্র সে। সোমবার বিমানবন্দরে এসেছিলেন বিদেশ ফেরত পরিবারের সদস্যদের নিয়ে যেতে।

অপেক্ষার ফাঁকে বিমানবন্দরের ক্যানপির বাইরের দিকে অবস্থিত একটি দোকান থেকে এক বোতল মিনারেল ওয়াটার কিনেছিলেন। দাম দিতে গিয়ে দেখলেন, বোতলের গায়ে লেখা দামের চেয়ে পাঁচ টাকা বেশি রেখেছেন দোকানদার।

দোকানের এক পাশে সাঁটানো ব্যানারে লেখা আছে, খালি বোতল ফেরত দিলে পাঁচ টাকা ফেরত দেয়া হবে। অথচ দোকানদার সে বিষয়ে কিছু বলছেন না। এ বিষয়ে দোকানদারকে জিজ্ঞাসা করার পর সে জানায়, বোতল ফেরত দিয়ে পাঁচ টাকা নিতে হলে আরও পাঁচ টাকা দিতে হবে!

এরপর বাধ্য হয়েই কল দিলেন এয়ারপোর্ট ম্যাজিস্ট্রেটের নাম্বারে। ঘটনার সত্যতা পেয়ে দোকানদারকে দশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের বিধান অনুযায়ী, আদায়কৃত জরিমানার ২৫ ভাগ অর্থাৎ ২৫০০ টাকা পান নাদিম হোসেন।

ফেসবুকে ম্যাজিস্ট্রেটস, অল এয়ারপোর্টস অফ বাংলাদেশ পেজে জানানো হয়, ভোক্তা হিসাবে আপনার অধিকার আদায়ে আপনিও সচেতন হোন। বিমানবন্দর এলাকায় ভোক্তা হিসাবে আপনার প্রাপ্য অধিকার লঙ্ঘিত হলে ফোন করুন ০১৩০৪০৫০৬০৩ নম্বরে।

আপনার ভাবনা জানান