ঘূর্ণিঝড় তিতলির প্রভাবে পানির নিচে পটুয়াখালীর ৫০ গ্রাম

জাতীয়

ঘূর্ণিঝড় তিতলির প্রভাবে আকস্মিক জোয়ারের উচ্চতা বেড়ে বন্যায় প্লাবিত হয়েছে জেলার অন্তত ৫০টি গ্রাম। পটুয়াখালীতে ক্রমশই আবহাওয়ার অবনতি ঘটছে। এতে পানিবন্দী হয়ে পড়েছে হাজারো পরিবার।

বিভিন্ন স্থানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধ মেরামত না করায় তলিয়ে গেছে রোপা আমনের ক্ষেত। আকস্মিক বন্যায় বন্ধ করে দেয়া হয়েছে পায়রা সমুদ্র বন্দরের সকল কার্যক্রম। জেলার অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার রুটের সব নৌযান চলাচল বুধবার থেকে বন্ধ রয়েছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা হয়েছে। জেলা সদর ও প্রতিটি উপজেলায় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খুলে ১১১ টি মেডিকেল টিম, ৮টি ভ্যাটেনারি টিম ও রেড ক্রিসেন্টের স্বেচ্ছাসেবক দলসহ ৩৯১ টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।ঘূর্ণিঝড় তিতলি-পটুয়াখালি

তিতলির ক্ষয়ক্ষতি মোকাবলোয় বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপকূলীয় অঞ্চলের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীর ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *