ইন্টারপোলের প্রধানকে আটকের কথা জানাল চীন

আন্তর্জাতিক

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অপরাধ ও অপরাধীদের নিয়ে কাজ করার আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের প্রধান মেং হংওয়েইকে আটকে কথা জানিয়েছে চীন।
সরকারি কর্মকর্তাদের দুর্নীতির বিষয় নিয়ে কাজ করা রাষ্ট্রীয় সংস্থা চায়না ন্যাশনাল সুপারভিশন কমিশন তাদের ওয়েবসাইটে এক বিবৃতিতে বলেছে, মেং হংওয়েইয়ের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত চলছে। আইন ভঙ্গের সন্দেহে চীন সরকারের জননিরাপত্তা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মেং হেংওয়েইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মেং হংওয়েই চীন সরকারের জননিরাপত্তাবিষয়ক উপমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। মূলত ইন্টারপোলের নির্বাচিত প্রধানের এই পদে আসীন ব্যক্তির ওপর সংস্থাটির নির্বাহী এবং ব্যবস্থাপনা-সংক্রান্ত কার্যক্রমের দায়ভার বর্তায়।
সংস্থাটির সদর দপ্তর ফ্রান্সের লিঁও শহর থেকে ১০ দিন আগে নিজ দেশ চীনের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার পর থেকে মেং হংওয়েইয়ের কোনো হদিস মিলছিল না বলে জানিয়েছিলেন তাঁর স্ত্রী।
ফরাসি পুলিশ এ বিষয়ে তদন্ত শুরু করে। এর মধ্যেই চীনের পক্ষ থেকে হংওয়েইয়ের আটকের তথ্য জানানো হলো।
অন্যদিকে এরই মধ্যে ইন্টারপোলের প্রেসিডেন্টের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন মেং। এক বিবৃতিতে ইন্টারপোল জানায়, রোববার মেং হংওয়েইয়ের পাঠানো পদত্যাগপত্র হাতে পেয়েছে সংস্থাটি।
মেং হংওয়েইয়ের স্ত্রী গত শুক্রবার অভিযোগ করেছিলেন, গত ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে তিনি তাঁর স্বামীর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করতে পারছেন না। এর পর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ নানাভাবে হুমকির তিনি শিকার হয়েছেন।
যদিও সে সময় একটি সূত্রের বরাত দিয়ে হংকংয়ের সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, মেং হংওয়েই চীনে প্রবেশ করামাত্র কিছু বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে আটক করা হয়েছে।
১৯২টি সদস্য দেশ নিয়ে গঠিত সংস্থাটিতে ২০১৬ সালে চার বছরের জন্য প্রধান নির্বাচিত হন চীনা ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির জ্যেষ্ঠ এই নেতা। ইন্টারপোলের ৯৮ বছরের ইতিহাসে মেংকেই প্রথম প্রধান হিসেবে পাঠায় চীন।
এর আগে গত মাসে চীনের জ্বালানিবিষয়ক নিয়ন্ত্রণ সংস্থার প্রধান নুর বেকরিকে দুর্নীতির দায়ে আটক করে দেশটির সরকার। চীনা কমিউনিস্ট পার্টির জ্যেষ্ঠ নেতা নুর বেকরি দেশটির সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলমান সম্প্রদায়ের একমাত্র উচ্চপদস্থ ব্যক্তি ছিলেন।
সাম্প্রতিককালে চীনে এ ধরনের বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। হঠাৎ করেই চীনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা ‘নাই’ হয়ে যাচ্ছেন। এ তালিকায় বিনোদন জগতের প্রভাবশালী তারকারাও রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *