মালয়েশিয়ায় অবৈধ প্রবাসীদের জন্য সুখবর

আন্তর্জাতিক

দেশে ফেরার সুযোগ পাচ্ছেন মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত অবৈধরা প্রবাসীরা। তারা চাইলে স্পেশাল পাস নিয়ে নিজ নিজ দেশে ফিরতে পারবেন। দেশটির অভিবাসন বিভাগ অবৈধ প্রবাসীদের এ সুযোগ দিয়েছে। এর আগে আত্মসমর্পণের মাধ্যমে স্বেচ্ছায় নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার কর্মসূচি থ্রি প্লাস ওয়ান এর মেয়াদ শেষ হয়েছে ৩০ আগস্ট।

তবে ওই বিশেষ কর্মসূচির মেয়াদ শেষ হলেও স্পেশাল পাস নিয়ে অবৈধরা নিজ দেশে ফেরত যেতে পারবেন বলে অভিবাসন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।

এছাড়া রি-হায়ারিং প্রকল্পে নিবন্ধিত এবং লেবি জমা হয়েছে ভিসা বের হয়নি কিন্তু জরুরি বাড়ি যেতে হবে তাদের অবশ্যই নিজ কোম্পানির প্রধানকে নিয়ে ইমিগ্রেশনে যেতে হবে তাহলে অল্প টাকায় বিশেষ পাস মিলবে।

কোনো দালাল বা কারও সহায়তা না নিয়ে সরাসরি অভিবাসন দফতরে যেতে বলা হয়েছে, এ ক্ষেত্রে শুধুমাত্র নিজ মালিককে সঙ্গে নিয়ে যাওয়া যেতে পারে। সঙ্গে ৭ দিন মেয়াদের ফ্লাইট টিকিট নিতে হবে।

বিশেষ পাস নিতে ইচ্ছুক যেসব বাংলাদেশিদের পাসপোর্ট নেই তাদের প্রথমে কুয়ালামপুর বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে ট্রাভেল পাস নিতে হবে।

এদিকে মালয়েশিয়া অভিবাসন দফতর থেকে দেয়া তথ্যমতে ৩০ আগস্ট শেষ হয়ে যাওয়া থ্রি-প্লাস ওয়ান প্রকল্পে এ বছরে ১ লাখ ৪৮ হাজার ৭৭৪ অভিবাসী নিজ দেশে ফেরত গেছেন।

আগস্টে শেষ হওয়া থ্রি-প্লাস ওয়ান প্রকল্পে অভিবাসন দফতরে মোট ৪’শ রিঙ্গিত (৮ হাজার টাকা) পরিশোধ করে ফেরত যাওয়ার সুযোগ থাকলেও এখন স্পেশাল পাস নিতে কয়েকটি ক্যাটাগরি অনুযায়ী জরিমানা পরিশোধ করতে হবে।

কোন কোন ক্যাটাগরিতে কত অর্থদণ্ড দিতে হবে তা জানানো হয়েছে। যদি কেউ এক মাসের কম সময় অবৈধভাবে অবস্থান করে থাকে তাহলে দৈনিক ৩০ রিংগিত হারে জরিমানা দিয়ে বিশেষ পাস নিতে হবে। এক মাসের বেশি কিন্তু ৬ মাসের কম সময় অবৈধভাবে অবস্থান করে থাকে তাহলে ১ হাজার রিংগিত জরিমানা দিয়ে বিশেষ পাস নিতে হবে।

৬ মাসের বেশি থেকে ৩ বছরের কম সময় অবৈধভাবে অবস্থান করে থাকেন তাহলে ২ হাজার রিংগিত জরিমানা দিয়ে বিশেষ পাস নিতে হবে। ৩ বছরের বেশি সময় অবৈধভাবে অবস্থান করে থাকেন তাহলে ৩ হাজার রিংগিত জরিমানা দিয়ে এ বিশেষ পাস নিতে হবে।

যাদের অভিবাসন দফতরে প্রবেশের কোন রেকর্ড নেই (নদীপথে) তাদের ২৯০০ শত রিঙ্গিত জরিমানা দিতে হবে। অসুস্থদের ক্ষেত্রে মেডিকেল সার্টিফিকেট নিয়ে গেলে দ্রুত স্পেশাল পাস পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *