ময়মনসিংহে গণধর্ষণ মামলার আসামি কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

অপরাধ ধর্ষন

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দাবি, নিহত ব্যক্তি একটি গণধর্ষণ মামলার আসামি ও ডাকাত দলের সদস্য।

আজ মঙ্গলবার সকালে ভালুকা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাঈন উদ্দিন গণমাধ্যমের কাছে দাবি করেন, গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলার উথুরা ইউনিয়নের হাতিবেড় এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

Advertisement
নিহত সাইফুল ইসলাম উপজেলার কৈয়াদি এলাকার বাসিন্দা।
ওসি বলেন, গত ১৬ জুন ভালুকার একটি গ্রামে এক কিশোরীকে গণধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সাইফুল আসামি ছিলেন। গতকাল রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাঁকে ধরতে হাতিবেড় এলাকায় অভিযান চালায় ময়মনসিংহ ডিবি ও ভালুকা থানা পুলিশ। সে সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সাইফুল ও তাঁর লোকজন গুলি ছুড়তে শুরু করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে আক্রমণকারীরা পালিয়ে যায়।
পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সাইফুলকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান ও তিনটি ছোরা উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত সাইফুলের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।
গত ১৬ জুন ভালুকার অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে স্কুলে যাওয়ার পথে জোরপূর্বক জঙ্গলে নিয়ে গলায় চাকু ধরে ও এসিড নিক্ষেপের ভয় দেখিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ ও তা ভিডিও করে একই গ্রামের সাইফুল ইসলাম ও রমজান আলী (৩০)। পরে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে বিচার চেয়ে ব্যর্থ হয়ে ময়মনসিংহ পুলিশ সুপারের বিশেষ নির্দেশে ৩০ জুন ভালুকা মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা (নম্বর-৬২) করে ওই মেয়ের পরিবার।