ধর্ষণ মামলায় পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ধর্ষন

এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ সদস্য তরুণ কান্তি বিশ্বাসের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।
আজ রোববার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জয়শ্রী সমাদ্দার এ আদেশ দেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ২০১৭ সালের ১৮ অক্টোবর ঢাকার নারী ও শিশু আদালতের বিচারক শফিউল আজমের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। এর পরে বিচারক মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন। পরে গত বছরের ২০ নভেম্বর পিবিআইর পরিদর্শক শামীম আহমেদ তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।
আইনজীবী আরো বলেন, আজ মামলার ধার্য তারিখ থাকায় বিচারক সে মামলার প্রতিবেদন আমলে নিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
নথি থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের মে মাসে পুলিশ সদস্য তরুণ কান্তি বিশ্বাস ওই নারীর ভাড়া করা বাসায় সাবলেট হিসেবে ভাড়া নেন। একদিন দুধের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে নারীকে অচেতন করে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করেন তরুণ। পরে তিনি সেটি দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে নানা সময়ে ধর্ষণ করেন।
এ ঘটনায় আসামির বিরুদ্ধে বাদী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন।